• |
×
৭ কোটি ভ্যাকসিন পাবে বাংলাদেশ, প্রতি ডোজের দাম ১৩৮-১৭০ টাকা কারা অধিদপ্তর সূত্র জানায়, আদালতে ফাঁসির রায় ঘোষণার পর আসামিকে কারাগারের কনডেম সেলে নেওয়া হয়। এই বন্দীদের মধ্যে ৪৯ জন নারী। দেশে এখন পর্যন্ত কোনো নারীর ফাঁসি কার্যকর হয়নি। বরগুনায় রিফাত শরিফ হত্যা মামলায় ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত আয়শা আক্তার ওরফে মিন্নিসহ মোট ৮৮৮ জন বন্দী দেশের ৬৮ কারাগারের কনডেম সেলে আছেন। কনডেম সেলের বন্দীদের জন্য আচরণবিধিও ভিন্ন দেশের ৬৮ কারাগারে মোট ৮৮৮ জন বন্দী কনডেম সেলে
মো. দিল, সংবাদদাতা সিরাজগঞ্জ
প্রকাশ : ২১/৯/২০২২ ৯:২৭:৩৬ PM

আনন্দের দিনে সাফজয়ী আঁখির বাবাকে শাসিয়ে গেল পুলিশ

আঁখিদের ঘিরে যখন গোটা দেশ মেতেছে উৎসবে ঠিক তখনই দুঃসংবাদ শুনতে হয়েছে সাফ জয়ী নারী ফুটবলার আঁখি খাতুনকে। সরকার থেকে পাওয়া জমি নিয়ে তার বাবাকে শাসিয়ে গেছে সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর থানা পুলিশের এএসআই মামুন।

এমন অভিযোগ করেছেন আঁখি ও তার বাবা। কাগজে সই করতে রাজি না হওয়ায় আখির বাবাকে থানায় উঠিয়ে নিয়ে যাওয়ার হুমকিও দেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন আঁখি বড় ভাই নজরুল ইসলাম।

এ বিষয়ে ডিফেন্ডার আঁখি বলেন, আমার বাবাকে থানা থেকে ধমকিয়েছে একটা পেপার নিয়ে। বলেছে সই করতে হবে। আমার বাবা সই করেননি। তাই আমার বাবাকে থানায় নিয়ে যাবে বলেছে। আমাকে ফোনে জানানো হয়েছে আমি যাওয়ার পর থানায় যেতে হবে আমাকেও।

আখির বাবার সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, আমি বাদী বা আসামি কোনোটাই না। আমি পুলিশকে বলেছি আপনারা ইউএনও মহোদয় বা ডিসি স্যারের সাথে কথা বলেন। তখন আমাকে কটূক্তি করেছে তারা। আর এক পুলিশ সদস্য আমাকে ধরে নিয়ে যাবে বলেছে।

আঁখির বড় ভাই নাজমুল ইসলাম বলেন, গতকাল বুধবার বিকালে শাহজাদপুর থানা থেকে এএসআই মামুনসহ একটি টিম এসে আমার বাবাকে বলেন, সরকার থেকে আঁখিকে যে জায়গাটা দেওয়া হয়েছে। কোর্টে থেকে সেখানে ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে। আপনারা এখান থেকে চলে যান। তা না হলে থানায় ধরে নিয়ে যাবো।

ঘটনার সত্যতা শিকার সিরাজগঞ্জ জেলার শাহজাদপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নজরুল ইসলাম বলেন, আঁখিদের জমি সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে কোর্টে থেকে একটা নোটিশ এসেছিল।

সেই নোটিশে কপিটা এএসআই মামুন আঁখির বাবাকে দিতে গিয়েছিল এবং রিসিভ করে একটা সই দিতে বললে সেখানে আঁখির বাবা সাথে কথা কাটাকাটি হয়। বিষয়টি আমি শোনার পরে ঘটনাস্থলে গিয়ে এএসআই মামুনকে দিয়ে সরি বলানো হয়েছে।