মহামারী করোনা
সবাইকে ভ্যাকসিনের আওতায় আনা হবে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী করোনাভাইরাস: টিকার প্রয়োগ শুরু করেছে ভারত প্রতি উপজেলাতেই ৭ লাখ ডোজ ভ্যাকসিন থাকবে সেরামের ভ্যাকসিন চলতি মাসের ২৫ তারিখের মধ্যেই দেশে আসবে দেশে করোনায় কমেছে মৃত্যু সিঙ্গাপুর ভ্যাকসিন কার্যক্রম শুরু করলো
সিরাজগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি : মো :দিল
প্রকাশ : ১৩/১/২০২১ ৭:২৪:২৮ PM

জমে উঠেছে সিরাজগঞ্জ সদর পৌরসভা নির্বাচন

প্রার্থীদের গণসংযোগ আর প্রচার-প্রচারণায় জমে উঠছে আসন্ন সিরাজগঞ্জ পৌরসভার নির্বাচন। নানা প্রতিশ্রুতি নিয়ে প্রার্থীরা ছুটছেন ভোটারের দ্বারে দ্বারে।

প্রত্যেকেই নির্বাচনে জয়ের ব্যাপারে শতভাগ আশাবাদী। আর ভোটাররা বলছেন, সৎ ও যোগ্য প্রার্থীকেই বেছে নেবেন তারা।

শহরের রাস্তাঘাট, অলিগলি ও পাড়া-মহল্লা এখন মিছিল আর স্লোগানমুখর। ব্যানার-ফেস্টুনে ছেয়ে গেছে পুরো শহর। চায়ের দোকান থেকে শুরু করে বসতবাড়িতেও এখন আলোচনার বিষয় শুধু নির্বাচন। প্রার্থীরা ভোট চেয়ে চষে বেড়াচ্ছেন তাদের নির্বাচনী এলাকা।

সিরাজগঞ্জ পৌর সভা নির্বাচনে মেয়র পদে আওয়ামী লীগ, বিএনপি ও সতন্ত্র মনোনীত প্রার্থীরা অংশ নিয়েছেন।

বুধবার (১২ জানুয়ারি) সরেজমিনে সয়াধানগড়া, হোসেনপুর, মিরপুর, মালশাপাড়া, ধানবান্ধি, রহমতগঞ্জ, দিয়ারধানগড়া, সয়াগোবিন্দ, নতুনভাঙ্গাবাড়ী, এসএস রোড, মুজিব সড়কসহ পৌর এলাকায় ঘুরে মেয়র প্রার্থী ও কাউন্সিলর প্রার্থীদের পোস্টারে ছেয়েগেছে পাড়ামহল্লার ওলি-গলি।

বিভিন্ন ধরণের মাইকে গান বাজিয়ে প্রার্থীদের মন জয় করতে পৌর এলাকায় ওলিতে-গলিতে চলছে জোর প্রচারণা।

এদিকে আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়রপ্রার্থী সৈয়দ আব্দুর রউফ মুক্তা ব্যাপক গণসংযোগ করে বেড়াচ্ছেন।

তিনি জানান, মেয়র নির্বাচিত হলে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে সিরাজগঞ্জ পৌরসভার সমস্যাগুলো পর্যায়ক্রমে সমাধানের ব্যবস্থা করা হবে।

বর্তমান আওয়ামী লীগ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা ব্যাপক উন্নয়ন করছে তারই ধারাবাহিকতায় সিরাজগঞ্জেও ব্যাপক উন্নয়ন করা হয়েছে।

আমি আবারো নির্বাচিত হলে আরো ব্যাপক উন্নয়নের কাজ করা হবে। তাই আপনারা ১৬ জানুয়ারি আমাকে নৌকা প্রতিকে ভোট দিয়ে বিজয়ী করবেন।

অন্যদিকে বিএনপি মনোনীত মেয়র প্রার্থী সাইদুর রহমান বাচ্চু প্রচার প্রচারণায় থেমে নেই। দলের নেতাকর্মদের সাথে নিয়ে পৌর এলাকা গুলোতে গিয়ে প্রত্যেক ভোটারকে ভোটকেন্দ্রে গিয়ে ভোট প্রদানের আহ্বান জানান তিনি।

নিরপেক্ষ নির্বাচন হলে আমি বিজয়ী হবো ইনশাআল্লাহ। ভোটারদের তিনি ধানের শীষ প্রতীকে ভোট দিতে ভোটারদের কাছে অনুরোধ জানান।

এছাড়াও ভোটের মাঠে প্রচার-প্রচারণায় ব্যস্ত আছেন সতন্ত্র মেয়র প্রার্থী টিআর এম নুরে আলম হেলাল। পৌর এলাকার ভোটারদের ঘরে ঘরে গিয়ে ভোট প্রার্থনা করছেন তিনি।

তিনি আশাবাদী হয়ে বলেন, আমি সিরাজগঞ্জ পৌর সভার দুই বার মেয়র ছিলাম। জনগণ আবারো আমাকে ভোট দিয়ে মেয়র নির্বাচিত করবেন বলে আমি আশা করি।

সেই সঙ্গে নিজ নিজ প্রতীকে ভোট প্রার্থনা করে পাড়া-মহল্লা চষে বেড়েচ্ছেন কাউন্সিলর প্রার্থীরাও। সবাই নিজ নিজ প্রতীকে ভোট দিতে ভোটারদের কাছে অনুরোধ জানান। পিছিয়ে নেই সংরক্ষিত মহিলা প্রার্থীরা। তারাও মা-বোনদের ঘরে ঘরে গিয়ে ভোট প্রার্থনা করছেন।

১৩,১৪,১৫ নং ওয়ার্ডের সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর প্রার্থী রোমানা রেশমা বলেন, আমি মানুষের জন্য সবসময় কাজ করি। মানুষের বিপদে-আপদে পাশে দাঁড়াই। আশা করছি, ভোটাররা আমাকে বঞ্চিত করবেন না।

সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা মো: আজিজার রহমান বলেন, সিরাজগঞ্জ পৌরসভায় মোট ভোটার সংখ্যা ১লক্ষ ১৩হাজার ৯২৬ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার সংখ্যা ৫৫ হাজার ৯২৮ জন। আর নারীর ভোটার সংখ্যা ৫৭ হাজার ৯৯৮ জন। প্রস্তাবিত ভোট কেন্দ্রের সংখ্যা ৫৭টি এবং বুথ সংখ্যা ৩০২টি।

অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) ও রিটার্নিং কর্মকর্তা মোহাম্মাদ তফাজ্জল হোসেন জানান, আগামী ১৬ জানুয়ারি দ্বিতীয় ধাপে সিরাজগঞ্জ পৌরসভার নির্বাচন ব্যালট পেপারের মাধ্যমে ভোট গ্রহণ হবে। নির্বাচনে মেয়র পদে তিনজন, কাউন্সিলর পদে ৮৫ জন এবং মহিলা কাউন্সিলর পদে ২৯ প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

নির্বাচনে আচারন বিধি সঠিক ভাবে প্রতিপালনের জন্য ৫ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মাঠে কাজ করছেন। ভোটের দিন ১৫ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সিরাজগঞ্জ পৌর এলাকায় নিয়োজিত থাকবে।



সপ্তাহের সর্বাধিক পঠিত খবর সমূহ
অন্যান্য খবর