মহামারী করোনা
করোনা টিকার ২০ লাখ ডোজ আসছে আজ করোনা টিকার দ্বিতীয় চালান আসবে ২২ ফেব্রুয়ারি করোনার টিকা নিতে আগ্রহী বাংলাদেশের ৬৬ শতাংশ মানুষ দেশে করোনায় সর্বনিম্ন মৃত্যু টিকায় আস্থা রাখলেন ডা. জাফরুল্লাহ ঢাকার যেসব হাসপাতালে আজ থেকে করোনার টিকা প্রয়োগ হবে
এবিএস ফরহাদ
প্রকাশ : ১৪/২/২০২১ ১০:২৪:৫৫ AM

আজ বসন্তের ভালবাসা


"হয়তো ফুটেনি ফুল রবীন্দ্র-সঙ্গীতে যতো আছে,
হয়তো গাহেনি পাখি অন্তর উদাস করা সুরে
বনের কুসুমগুলি ঘিরে । আকাশে মেলিয়া আঁখি
তবুও ফুটেছে জবা,–দূরন্ত শিমুল গাছে গাছে,
তার তলে ভালোবেসে বসে আছে বসন্তপথিক ।"


কবি নির্মলেন্দু গুণের কবিতায় ফুুটেঁ উঠেছে বসন্তের আবেগ, ছোয়াঁ ও ভালবাসা। 

হাওয়ার গল্প আর পাখিদের গান শুনে শুনে, আজ এই ফাল্গুনে দুটি চোখে স্বপ্ন শুধু আঁকো!’ শিল্পীর সুরে এই কথাগুলো ফুটে ওঠার দিন আজ, আজ যেন স্বপ্ন দেখারই দিন।

কুয়াশার চাদর মোড়ানো প্রকৃতিতে যেমন লেগেছে বসন্তের রঙের ছোঁয়া, তেমনি মানবহৃদয়ে ফুটেছে ভালোবাসার ফুল। বসন্তের মাতাল হাওয়ায় উন্মাদনা ছড়িয়ে ভালোবাসার বীজ বুনতে মগ্ন থাকার দিন আজ। আজ বিশ্ব ভালোবাসা দিবস।

সারা বিশ্ব আজ ভালোবাসার উন্মাদনায় হবে মাতোয়ারা। এতদিন ফেব্রুয়ারি মাসের ১৩ তারিখে ফাল্গুন মাসের প্রথম দিন উদযাপন আর ১৪ ফেব্রুয়ারি বিশ্ব জুড়ে ভালোবাসা দিবস উদযাপন করা হলেও বাংলা বর্ষপঞ্জিতে সংশোধনের কারণে গত বছর থেকে ফাল্গুনের আগুন আর ভালোবাসা দিবসের রঙ হয়েছে মিলেমিশে একাকার।

২৭০ খ্রিস্টাব্দের ১৪ ফেব্রুয়ারি খ্রিস্টানবিরোধী রোমান সম্রাট গথিকাস আহত সেনাদের চিকিৎসার অপরাধে খ্রিস্টান পাদ্রি ও চিকিৎসক ফাদার সেন্ট ভ্যালেন্টাইনকে দেন মৃত্যুদণ্ড। মৃত্যুর আগে ফাদার ভ্যালেন্টাইন তার আদরের একমাত্র মেয়েকে লেখেন একটি ছোট্ট চিঠি। আর সেখানে স্বাক্ষর করেন ‘ফ্রম ইওর ভ্যালেন্টাইন’ নামে।

যুদ্ধে আহত মানুষকে সেবার অপরাধে মৃত্যুদণ্ডে দণ্ডিত সেন্ট ভ্যালেন্টাইনের এ আত্মত্যাগই প্রমাণ করে ভালোবাসার কাছে আয়োজন তুচ্ছ। বাবার স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে সেন্ট ভ্যালেন্টাইনের মেয়ে ও তার প্রেমিক মিলে পরের বছর থেকে বাবার মৃত্যুর দিনটিকে ভ্যালেন্টাইন’স ডে হিসেবে পালন করা শুরু করেন। তবে এ নিয়ে রয়েছে ভিন্নমতও।

সে মতে সেন্ট ভ্যালেন্টাইন একজনকে ভালোবেসেছিলেন। আর ওই চিঠিটি লিখেছিলেন তার প্রেমিকার কাছে। মত যা-ই হোক, ৪০০ খ্রিস্টাব্দের দিকে ভালোবাসা দিবস হিসেবে সার্বজনীন হয়ে ওঠে ১৪ ফেব্রুয়ারি। অর্থাৎ আজকের দিনটি। কালক্রমে এটি সমগ্র ইউরোপ থেকে সারা বিশে^ ছড়িয়ে পড়ে। দিনটি উন্মাদনা ছড়ায় এখন বাংলাদেশেও।

বিশ্বকে যখন করোনা মহামারি স্তব্ধ করে দিয়েছিল তখনও মানবতার গল্প যেমন থেমে থাকেনি তেমনি থেমে থাকেনি ভালোবাসার গল্পগুলোও। বিশেষ করে তথ্য-প্রযুক্তির এ যুগে বাস্তবের চাইতে অন্তর্জালে ছড়াবে ভালোবাসার গল্পগুলো। আজ মুঠোফোন, ফেসবুক, টুইটার, হোয়াটসঅ্যাপে বিনিময় হবে প্রেম।

আজকের দিনে তরুণ-তরুণী থেকে শুরু করে অশীতিপর বৃদ্ধ-বৃদ্ধারাও নিজেদের প্রিয়মানুষের কাছে সমর্পণ করবেন। এ ভালোবাসা শুধু প্রেমিক-প্রেমিকা নয়, মা-বাবা, ভাই-বোন ও বন্ধুদের মধ্যেও ছড়িয়ে যাবে আজকে।

করোনার মহামারি কাটিয়ে উঠে যখন দেশ টিকাদান উৎসবে মুখর তখন আজকের এই ভালোবাসা দিবসের রঙ ছড়াবে কল্পনাতীত এ যেন ভবিতব্য। আর তাই প্রিয়জনদের কাছে নিজেকে আকর্ষণীয় করে তুলতে রাজধানীর বিপণিবিতানগুলোতে ছিল উপচে পড়া ভিড়।

কথা হয় কয়েক বসন্তী উৎসবে মেতে উঠা তরুণ তরুণীর সাথে। তারা জানান, বসন্ত যেমন ভালবাসার এই দিন কে রঙিন ছোয়াঁ দিয়েছে। তেমনি ভালবাসা দিবস বসন্তকে দিয়েছে রঙের প্রলেপ। ভ্যালেন্টাইন'স ডে'তে ভালবাসাকে গভীরভাবে উপলব্ধি করতে পারি আমরা। প্রতিদিনের ভালবাসা থাকুক আমাদের। 



সপ্তাহের সর্বাধিক পঠিত খবর সমূহ
অন্যান্য খবর